সুদ কারবারি মর্জিনা বেগমের অত্যাচারে অতিষ্ট ঘোড়াগাছা এলাকার মানুষ।

0
12

পিন্টু স্যার নাটোর প্রতিনিধি
প্রকাশ ১৭/০৯/২০২০
সময় ৫.০০.pm

নাটোরের শহরের ঘোড়াগাছার এলাকার কুখ্যাত সুদ ব্যবসায়ী মর্জিনা বেগমের সুদের চাপ সইতে না পেরে শুধু ৬ নম্বর ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ইমতিয়াজ আহম্মেদ বুলবুল(৪৬) আত্মহত্যা করেছেন তা নয় আরোও অনেকেই আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বলে জানান এলাকাবাসী।

সুদের টাকা আদায়ের জন্য এহীন কাজ নেই যে মর্জিনা করতে পারেনা। দীর্ঘ দুই যুগের বেশি সময় ধরে সুদের রমরমা কারবার চালিয়ে আসছে পুরো পরিবার। নিম্ন ও মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্যদের বিপদের সুযোগ নিয়ে উচ্চ হারে সুদে টাকা দেন মর্জিনা,তাঁর বোন হাসিনা এবং ভাই সাদ্দাম হোসেন।

হাজারে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকায় তারা সুদে টাকা দেয়। মূল টাকা শোধ করলেই সুদের টাকার কোন মাফ নেই। সুদের টাকা না দিলেই মর্জিনা তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে মারপিট , অত্যাচার – নির্যাতন চালাতো। এ পর্যন্ত লাঠিয়াল বাহিনী মর্জিনার সুদের টাকা না দেওয়ায় তিনটি বাড়ি দখল করেছে বলে জানান এলাকাবাসী ।

সুদ ব্যবসায়ী মর্জিনার অত্যাচারে অনেকেই বাড়িঘর বিক্রি করতে বাধ্য করেছে। অনেকে ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। পুরো এলাকাবাসী মর্জিনার অত্যাচার- নির্যাতনের নিরব স্বাক্ষী হলেও এতোদিন কেউ ভয়ে মুখ খুলে নাই। সুদের টাকা চাপ সইতে না পেরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বুলবুল আত্মহত্যার পর প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেছে।

এলাকাবাসী বুলবুলের আত্মহত্যার প্ররোচনার সাথে জড়িত সুদ ব্যবসায়ী মর্জিনা বেগমসহ সুদ ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

এলাকাবাসী ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শহরতলীর ঘোড়াগাছা গ্রামের হোসেন আলীর স্ত্রী কুখ্যাত সুদ কারবারী মর্জিনা বেগমের নিকট থেকে ২০ হাজার টাকা সুদে নেন । সুদসহ প্রায় তিনলাখ টাকা পরিশোধ করেন ।তারপরও দুই লাখ টাকা দাবী করে তাকে অত্যাচার চালিয়ে আসছিল।

শনিবার রাত ১০ টার দিকে সুদ ব্যবসায়ী মর্জিনা লোকজন দিয়ে তাকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায় । এরপরে উলঙ্গ করে মারপিটে করে দুটি ফাঁকা চেকে দুই লাখ টাকা লিখে স্বাক্ষর নেন এবং ভিডিও করে স্বীকারোক্তি নেয় ।

মূলত সুদের টাকার চাপ সইতে না পেরে শহরের ঘোড়াগাছা আমহাটি এলাকার মুদি ব্যবসায়ী ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইমতিয়াজ আহম্মেদ বুলবুল রবিবার ভোরে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আÍহত্যার চেষ্টা করে।

এ সময় প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার এ সময় নাটোর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়ক আহম্মেদ সেলিম স্বেচ্ছাসেবক নেতা ইমতিয়াজ আহম্মেদ বুলবুলের আত্মহত্যার প্ররোচনাকারী সুদ ব্যবসায়ী মর্জিনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান ।

শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি শোক ও সমবেদনা জানান স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকর্মীরা ।
স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইমতিয়াজ আহম্মেদ বুলবুলের ভাগিনা সোহাগ জানান, মামা মৃত্যুর পূর্বে ব্যক্তিগত ডাইরীতে তিনি সুদ ব্যবসায়ী মর্জিনা বেগমের অত্যাচার নির্যাতনের কথা লিখে গেছেন ।

এ ব্যাপাওে সুদকারবারী মর্জিনার নাম্বারে একাধিক কল দিয়েই তাকে পাওয়া যায়নি ।

নাটোর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল মতিন বলেন, এ ঘটনায় মর্জিনার ভাই সাদ্দাম হোসেন কে আটক করেছে পুলিশ। বুলবুলের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। তদন্তস্বাপক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

Leave a Reply