রাত পোহালে পাবনা- ০৪ আসনে উপ নির্বাচন কে হচ্ছেন এম পি ?

ঈশ্বরদী প্রতিনিধিঃ পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) আসনের উপনির্বাচনে প্রচারের সময় শেষ হয়েছে বৃহস্পতিবার। আজ রাত পোহালেই শনিবার ভোট অনুষ্ঠিত হবে। শেষ সময়ে এই উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরাও সরব হয়ে ওঠেন। গত এক মাস ধরে ঈশ্বরদী ও আটঘরিয়ায় দু’দলের নেতাকর্মীদের মিছিল-পথসভায় রাজনৈতিক মাঠ সরগরম হয়ে ওঠে। আগামীকালের ভোটের পর থেমে যাবে এই রাজনৈতিক কোলাহল। সংসদ সদস্য ও সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর মৃত্যুতে এই আসন শূন্য হয়।

বৃহস্পতিবার প্রচারের শেষ দিনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি পথসভার আয়োজন করলেও এ কর্মসূচি জনসভায় রূপ নেয়। গতকাল ঈশ্বরদীর মাহবুব আহমেদ খান স্মৃতি মঞ্চে ঈশ্বরদী পৌর আওয়ামী লীগ আয়োজিত নির্বাচনী পথসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান, প্রধান বক্তা হিসেবে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন ও সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন স্কয়ার গ্রুপের অন্যতম পরিচালক মুক্তিযোদ্ধা অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু। এ ছাড়া নৌকা মার্কার প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাসও বক্তব্য দেন।

পাকশীতে ঈশ্বরদী ইপিজেডের সামনে বিএনপি আয়োজিত ধানের শীষ প্রতীকের পথসভা জনসভায় রূপলাভ করে। ওই পথসভায় বিএনপির দুই নেতা সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম সরদার এবং নির্বাচনে দলের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব এক মঞ্চে প্রচারে অংশ নেন। এতে শেষ মুহূর্তে দলের মধ্যে দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্বের অবসান হয়েছে বলে দৃশ্যমান হয়েছে।

এদিকে গত এক মাস ধরে এই উপনির্বাচন নিয়ে উল্লেখযোগ্য কোনো ঘটনা না ঘটলেও গত বুধবার রাতে নৌকার প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাসের দুটি নির্বাচনী অফিস ভাংচুর ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি একে অন্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেও ঈশ্বরদী থানায় বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীকে আসামি করে গতকাল সন্ধ্যায় দুটি মামলা করে আওয়ামী লীগ। ওই দুই মামলাতে ২৮ জন (নামীয়) করে আসামি করা হয়েছে।

হামলার ঘটনায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাস বিএনপির প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবকে উদ্দেশ করে বলেন, তার ইন্ধনেই হামলা হয়েছে। বিএনপির প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা নিজেরাই তাদের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করে বিএনপির ওপর দোষ চাপাচ্ছেন। নির্বাচনী মাঠে বিএনপি নেতাকর্মীদের উপস্থিতি রোধ করতে তারা এই কৌশল নিয়েছে।

ঈশ্বরদী থানার ওসি সেখ নাসীর উদ্দীন এ ঘটনা ও দুটি মামলা বিষয়ে জানিয়ে বলেন, পুলিশ যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেবে।

Author: admin

Leave a Reply