নাটোরে যুবদলের তিন কর্মীকে মারপিট করে মোটর সাইকেল ভাংচুর

নাটোরে যুবদলের তিন কর্মীকে মারপিট করে মোটর সাইকেল ভাংচুর

মিলন মাহমুদ,গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি:-

নাটোরে এমদাদুল হক এমদাদ,আব্দুল কুদ্দুস ও পলাশ নামে তিন যুবদল কর্মীকে মারপিট করা সহ মোটর সাইকেল ভাংচুর করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার শহরের আলাইপুর এলাকায় বিএনপির কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর সাথে তার বাসায় সক্ষাত করতে আসার সময় তাদের ওপর হামলা চালিয়ে মারপিট করা হয় বলে বিএনপি নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেন।

বিএনপি দলীয় সুত্র দাবী করেছে.একটি নিয়মিত মামলায় নাটোর আদালতে হাজিরা দিতে আসেন বিএনপির কেন্দ্রিয় নেতা রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু। হাজিরা শেষে তিনি তার আলাইপুরস্থ নিজস্ব বাসায় কিছু সময় অবস্থান করেন। এসময় জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে দলের নেতা কর্মীরা সাক্ষাৎ করতে আসেন তার বাসায় আসতে থাকেন।

এসময় তার বাসায় আসার পথে আলাইপুর উপশহর এলাকায় একদল হামলাকারী গুরুদাসপুর থেকে আসা যুবদল কর্মী পলাশ ও এমদাদ এবং শহরতলির দিঘাপতিয়া থেকে মোটর সাইকেলযোগে আসা যুবদলকর্মী আব্দুল কুদ্দুসের ওপর হামলা চালিয়ে মারপিট করে। এসময় কুদ্দুস মোটর সাইকেল রেখে পালিয়ে গেলে তার মোটর সাইকেল ভাংচুর করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছিলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

এই হামলার জন্য ক্ষমতাসীন দলের কর্মীদের দায়ী করেছেন বিএনপির কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু। দুলু বলেন, তিনি একটি মামলার হাজিরা শেষে তার বাসায় কিছুক্ষণ অবস্থান করছিলেন। এ সময় সরকারী দলের সন্ত্রাসীরা তার নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে মারপিট ও মোটর সাইকেল ভাংচুর করেছে।

হামলাকারীরা তার বাড়িতেও হামলা করার চেষ্টা করেছে। তিনি এ ঘটনার নিন্দা ও দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। এ ঘটনার পর তিনি ঢাকায় চলে যান।
জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক দীলিপ কুমার দাসের কাছে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার কিছুই জানেননা বলে জানান। এধরনের কোন ঘটনার কথা তিনি লোকমুখেও শোনেননি বলে জানান।

নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, তিনি ২/৩ জন যুবকের মধ্যে মারপিট হয়েছে বলে শুনেছেন। তবে কেউ থানায় অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Author: admin

Leave a Reply