সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্যে দিয়ে ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল -প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য।

সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্যে দিয়ে ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল -প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য।

মুনিয়া মুক্তা, ব্যুরো প্রধান (খুলনা):- হাজার বছরের সর্বশ্রেষ্ট বাঙ্গালী, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে নিশংসভাবে হত্যা করে ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও আওয়ামী লীগকে ইতিহাসের পাতা থেকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিলো। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস আজ ঘাতকরাই ইতিহাসের আস্তা কুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে। যে অপশক্তি স্বাধীনতাকে মেনে নিতে পারেনি, সেই ৭১’র পরাজিত শত্রু ও দেশীয় ষড়যন্ত্রকারিরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছিলো। ফলশ্রুতিতে ১৯৭৫ সালের পর বাঙ্গালী জাতি দিশেহারা হয়ে পড়েছিল।

অনেক আন্দোলন-সংগ্রাম, জেল-জুলুম আর নির্যাতন সহ্য করে স্বাধীনতা স্বপক্ষের শক্তি আওয়ামীলীগ রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসে-দেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ফিরিয়ে আনাসহ উন্নয়নের চুড়ায় উঠাতে সক্ষম হয়েছে। বৃহষ্পতিবার দুপুরে মণিরামপুর উপজেলা কৃষক লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য (এমপি)।

মণিরামপুর প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি মিলনায়তনে উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি সূকৃতি বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি আরো বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী যুদ্ধবিধস্থ্য ক্ষতবিক্ষত দেশকে মাত্র সাড়ে ৩ বছরে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু মানুষেরা মনে শান্তি ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু কৃষি তথা কৃষক সমাজের উন্নয়নের কল্পে পাটকলসহ কলকারখানা গুলো জাতীয়করণ করেছিলেন।

সর্বোপরি দেশ পূনঃগঠনে একটি চমৎকার শাসনতন্ত্র প্রণয়ন করতে সক্ষম হয়েছিলেন। আজকের কৃষকলীগের এ বর্ধিত সভায় সর্বস্তরের জনতার আগ্রহ, উৎসহ-উদ্দীপনা, উপস্থিতি, সূ-শৃংখলতাসহ সব কিছু মিলিয়ে এটাই প্রমাণ করে কৃষকলীগের নেতাকর্মীরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার কার্যক্রমকে এগিয়ে নিতে এবং দেশ গঠনে যথাযথ ভুমিকা পালন করতে পারবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল ইসলাম ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মামুনুর রশিদ জুয়েলের পরিচালনায় সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কৃষকলীগের খুলনা বিভাগীয় দায়িত্ব প্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম পান্নু। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আলহাজ্জ্ব কাজী মাহমুদুল হাসান, সাধারন সম্পাদক প্রভাষক ফারুক হোসেন, যশোর জেলা কৃষকলীগের সভাপতি অ্যাড. শামছুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মোশাররফ হোসেন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা কৃষকলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ আলম মনির, দপ্তর সম্পাদক হাফিজুর রহমান, সহ-দপ্তর সম্পাদক কামরুজ্জামান মিলন, মৎস ও প্রাণী বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন রাজু, সদস্য শরীফ মুজিবুর রহমান, যশোর পৌর কৃষকলীগের সহসভাপতি আবু হানিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক একরামুর রেজা রানা, সদর উপজেলা কৃষক লীগের যগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরীফ, স্থানীয় আওয়ামীলীগনেতা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, জিএম এরশাদ আলী, আবুল হোসেন, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী জলি আক্তার প্রমুখ।

Author: admin

Leave a Reply