প্রতিহিংসায় বাঁধ কেটে দেওয়ায় গোবিন্দগঞ্জে নতুন করে ৫০টি গ্রাম প্লাবিত।

0
7

প্রতিহিংসায় বাঁধ কেটে দেওয়ায় গোবিন্দগঞ্জে নতুন করে ৫০টি গ্রাম প্লাবিত।

এম এম ফজলে রাব্বি ( গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি):-করতোয়া নদীর বাঁধ প্রতিহিংসাবশত কেটে দেওয়ায় গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে প্রায় ৫০টি গ্রাম নতুন করে প্লাবিত হয়েছে। করতোয়া নদীর পানি কমতে থাকলেও শুধু বাঁধ কেটে দেওয়ার করণে বন্যা কবলিত হয়েছে পড়ে দুটি ইউনিয়নের প্রায় ৪০ হাজার মানুষ। রবিবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় এই বাঁধ কেটে দেওয়া হয়।

জানা গেছে, করতোয়া নদীর উত্তর পশ্চিম অংশের দরবস্ত ইউনিয়নের দূর্গাপুর এলাকার বাঁধ গতরাতে কেটে দেওয়া হয়েছে। নিজ স্বার্থ চরিতার্থ করতে কিছু দুস্কৃতিকারী রাতের আধারে এই বাঁধ কেটে দেয়। বাঁধ কেটে দেওয়ায় নদীর পানিতে নতুন করে প্লাবিত হচ্ছে দরবস্ত, তালুককানুপুর ও তৎসংলগ্ন এলাকার প্রায় ৫০টি গ্রাম। নদীর পানি বিপদসীমার অনেক উপরে থাকায় বাঁধ কেটে দেওয়ায় সাথে সাথে বন্যামুক্ত এলাকার ৫০টি গ্রামের উঠতি ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে।

বাঁধ কেটে দেওয়ার তথ্য নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামকৃষ্ণ বর্মন জানান, রাতের আধারে দুস্কৃতিকারীরা বাঁধটি কেটে দেয়। তিনি আরও জানান, বাঁধ কাটার সাথে জড়িত দুস্কৃতিকারীদের শনাক্ত করে তাদের আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।
এদিকে, করতোয়া নদীর পানি কমার ধারা অব্যাহত আছে। সোমবার বেলা ৩টা পর্যন্ত করতোয়া নদীর পানি কাটাখালী পয়েন্টে বিপদসীমার ৮০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। সোমবার সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত কাটাখালী পয়েন্টে ৮ সেন্টিমিটার পানি কমেছে।

স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১৩টি ইউনিয়নের প্রায় ১৫০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ৫দিন ধরে বন্ধ আছে গোবিন্দগঞ্জ দিনাজপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের যান চলাচল। বন্যা দূর্গত এলাকায় তীব্র খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে। ত্রাণ বিতরণ হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল।

Leave a Reply