সাপাহার সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে বিপুল পরিমান মাদক দ্রব্য উদ্ধার৷

0
4
সাপাহার সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে বিপুল পরিমান মাদক দ্রব্য উদ্ধার৷

মনির হোসেন, উপজেলা প্রতিনিধি, সাপাহার নওগাঁ৷

নওগাঁর সাপাহার করমুডাঙ্গা ও বামনপাড়া সীমান্তে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ(বিজিবি)’র সদস্যরা পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান ভারতীয় মদ,গাঁজা ও ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে।

বিজিবি নওগাঁ-১৬ ব্যাটালিয়ন সুত্রে জানাগেছে, গত ১৪ আগস্ট সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে করমুডাংগা বিওপির টহল কমান্ডার নায়েব সুবেদার মোঃ আনিছুর রহমান এর নেতৃত্বে একটি টহল দল করমুডাংগা বিওপির দক্ষিণে সীমান্ত পিলার-২৩৭ হতে প্রায় ১ কিঃ মিঃ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বেলডাংগা নামক স্থানে অভিযান চালিয়ে মালিকবিহীন অবস্থায় ১৬ কেজি ভারতীয় গাঁজা আটক করে।

সাপাহার সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে বিপুল পরিমান মাদক দ্রব্য উদ্ধার৷

বিজিবি’র উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক পাচারকারী চক্রের অন্যতম সদস্য করমুডাঙ্গা গ্রামের মোঃ তৌফিকুল এর ছেলে আবু রায়হান (৩৩) ও মোঃ ইসরাইল হোসেনের ছেলে মোঃ বাবুল হোসেন (৩৫) বস্তা ভর্তি ওই গাঁজা ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

পলাতক মাদক পাচারকারীদের বিরুদ্ধে বিজিবির পক্ষ থেকে সাপাহার থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে অপরদিকে একই দিন বিকেলে গোপন সংবাদের ভত্তিতিে করমুডাংগা বওিপরি টহল কমান্ডার নায়বে সুবদোর মোঃ আনছিুর রহমান এর নতেৃত্বে সীমান্তের -২৪০ পিলার হতে প্রায় ১ কিঃ মিঃ বাংলাদশেরে অভ্যন্তরে উত্তর করমুডাংগা নামক স্থানে অভযিান চালয়িে মালকিবহিীন অবস্থায় ২৫ বোতল ফনেসডিলি আটক করে৷ অভযিান চলাকালে বজিবিরি উপস্থতিি টরে পয়েে মাদক পাচারকারী উত্তর করমুডাংগা গ্রামের মুনিরুলের ছেলে রুবলে (২৭) ফনেসডিলি গুলো ফেলে পালয়িে যায়৷

এ ঘটনায় পলাতক রুবেলের বরিুদ্ধে সাপাহার থানায় বিজিবির পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হয়ছে অপর মাদক দ্রব্য উদ্ধারের ঘটনা টি ঘটে গত ১৩ আগস্ট রাত সাড়ে ৯ টায় নওগাঁ ১৬ বজিবিরি অধীনস্থ বামনপাড়া সীমান্ত এলাকায়।

বিজিবি জানায় বামনপাড়া বওিপরি টহল কমান্ডার নায়কে সম্বল বড়ুয়ার নতেৃত্বে একটি টহল দল সীমান্তের মেইন পলিার ২৪৬/৬-এস হতে প্রায় ১০০ গজ বাংলাদশেরে অভ্যন্তরে আইহাই বাসন্দিাপাড়া নামক স্থানে অভযিান চালয়ি মালকিবহিীন অবস্থায় ১৫ (পনরে) প্যাকটে ভারতীয় ম্যাক ডোয়লেস মদ আটক কর।

বিজিবির অভিযানে জব্দকৃত মাদকদ্রব্য (ফেন্সিডিল,মদ, গাঁজা) গুলো শনিবার সাপাহার থানায় হস্তান্তর করা হয়।

এসকল ঘটনায় জড়িত পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে বিজিবির পক্ষ থেকে পৃথক পৃথক ভাবে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Leave a Reply