আমিও স্বাস্থ্যমন্ত্রী হয়ে সিন্ডিকেট ভাঙতে পারিনি৷

0
4
আমিও স্বাস্থ্যমন্ত্রী হয়ে সিন্ডিকেট ভাঙতে পারিনি৷
ডা. আ ফ ম রুহুল হক

করোনাভাইরাস ম’হামা’রির এ সময়ে স্বাস্থ্য খাতের অনিয়ম-অব্যবস্থাপনার বিষয়টি দেশের মানুষকে বিস্মিত করেছে। তাই সবার নজর এখন এদিকে। কাকে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে, নতুন কাকে আনা হচ্ছে, অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে কি হচ্ছে না, দুর্নীতি-অনিয়ম-অব্যবস্থাপনা কিভাবে বন্ধ হবে তা নিয়ে চলছে আলোচনা।এ প্রেক্ষাপটে সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী, বর্তমানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও খ্যাতিমান অর্থোপেডিক চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক কথা বলেছেন। দেশের স্বাস্থ্য খাত নিয়ে বর্তমানে যে পরিস্থিতি চলছে এ সম্পর্কে আপনার মূল্যায়ন কী? রুহুল হক : শুধু করোনা মহামারির পরিস্থিতিই নয়, আগে থেকেই নানা ধরনের সমস্যা চলছিল। সরকারি চিকিৎসা ব্যবস্থাপনার প্রতি এক ধরনের আস্থাহীনতা তৈরি হয়েছিল। রাজধানীর বিশেষায়িত হাসপাতাল থেকে শুরু করে কমিউনিটি ক্লিনিক পর্যন্ত চমৎকার অবকাঠামো রয়েছে, যা বিশ্বের অনেক দেশেই নেই। কিন্তু এগুলোর ব্যবস্থাপনায় গলদ থাকায় মানুষ সরকরি হাসপাতাল ছেড়ে প্রাইভেটে ছুটছে। নানাভাবে হয়রানি হচ্ছে। আর করোনা মোকাবেলার ক্ষেত্রে শুরু থেকেই আমাদের পলিসিতে বিভিন্ন ভুল ছিল। ঠিক কোনো পলিসি ছিল কি না তা নিয়েও আমার সংশয় রয়েছে। আমার মতো কেউ কেউ যখন এগিয়ে গিয়েছিলাম বিভিন্ন পরামর্শ দিতে তখন পাত্তা দেওয়া হয়নি। সংসদীয় কমিটিতে আলোচনা তুললেও সেখানেও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দিয়ে ওই কমিটির অন্য সদস্যদেরও বিভ্রান্ত করা হয়েছে।

ফলে পরে, এখন পর্যন্ত করোনা মোকাবেলার কোনো বিষয় নিয়ে সংসদীয় কমিটির আর কোনো বৈঠকও হয়নি। বারবারই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ভুল তথ্য দিয়ে ভুল পরামর্শ দেওয়া হয়েছে; যার ফলে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যায়নি। অনেক বিশৃঙ্খল অবস্থা তৈরি হয়েছে।কারণ দুর্নীতি-অব্যবস্থাপনা আর বিশৃঙ্খলার সুযোগ রয়ে গেছে বর্তমান কাঠামোর ভেতরেই। যদি একজন মন্ত্রী, সচিব, ডিজি বা পরিচালক পাল্টালেই সমস্যার সমাধান হয়ে যেত, তবে বছরের পর বছর, সরকারের পর সরকার দুর্নীতি-অব্যবস্থাপনা আর বিশৃঙ্খলা টিকে থাকত না। তাতে দুর্নীতি একদম বন্ধ করা না গেলেও যা হয়েছে এতটা কিছুতেই হতো না। যেভাবে প্রকৃত দামের চেয়ে একেকটি পণ্য কয়েক গুণ বেশি দামে কেনা হয়েছে, আবার নকল সুরক্ষা দিয়ে মানুষকে মেরে ফেলেছে, এটা মেনে নেওয়া যায় না।

Leave a Reply