“বন্যায় রাজশাহী অঞ্চলের সাত লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত”

0
1
"বন্যায় রাজশাহী অঞ্চলের সাত লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত"

বন্যায় রাজশাহী অঞ্চলের প্রায় সাত লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। নষ্ট হয়েছে ২৭ হাজার ৭৭৩ হেক্টর জমির ফসল। বুধবার (২৯ জুলাই) এক তথ্যবিবরণীতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে রাজশাহী, নাটোর, নওগাঁ, সিরাজগঞ্জ ও বগুড়ার বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

বন্যার কারণে রাজশাহী জেলায় ১১ হাজার ২৩৫ জন, নাটোরে ৩০ হাজার ৫০০ জন, নওগাঁয় ১৮ হাজার ৯৬৮ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৪০০ জন, সিরাজগঞ্জে ৫ লাখ ৪ হাজার এবং বগুড়ায় ১ লাখ ৩৩ হাজার ৯০ জন মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন। মোট ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সংখ্যা ৬ লাখ ৯৮ হাজার ১৯৩ জন।

বন্যায় রাজশাহী জেলার ১১৫ বর্গ কিলোমিটার প্লাবিত হয়েছে। নাটোরের সিংড়া, নলডাঙ্গা ও গুরুদাসপুর উপজেলা, ২টি পৌরসভা ও ১৭টি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। নওগাঁ সদর, জেলার মান্দা, আত্রাই, রাণীনগর, পোরশা, সাপাহার ও মহাদেবপুরসহ সাত উপজেলার ১৭টি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। মান্দা, রাণীনগর ও আত্রাই উপজেলার বাঁধ ও স্লুইচগেট এলাকায় ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।

এছাড়া সিরাজগঞ্জের কাজীপুর, সদর, বেলকুচি, চৌহালি, শাহজাদপুর, উল্লাপাড়া ও তাড়াশ উপজেলার মোট ১ হাজার ২৮ কিলোমিটার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বগুড়ার নিম্নাঞ্চল ও চরাঞ্চলের ১৬৭টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পাবনার বন্যা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। বিভাগের আট জেলার মধ্যে শুধু জয়পুরহাটে এখন পর্যন্ত বন্যা দেখা দেয়নি।

এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে পদ্মা নদীর ৩ হাজার ৩০০ মিটার ও মহানন্দা নদীর ১ হাজার ৭৫৪ মিটার বাঁধ অংশে ফাঁটল দেখা দিয়েছে। পদ্মা নদীর পানি এখন বিপদসীমার ১ দশমিক ৬৪ মিটার, মহানন্দা নদীর পানি শূন্য দশমিক ৮৬ মিটার ও পূনর্ভবা নদীর পানি শূন্য দশমিক ৬১ মিটার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারি ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত রয়েছে। রাজশাহীতে ২০ মেট্রিক টন চাল ও ১ লাখ ২০ হাজার টাকা নগদ সহায়তা দেয়া হয়েছে। বিতরণ করা হয়েছে ৯৬০ প্যাকেট শুকনো খাবার। নাটোরে ৬৮ মে. টন চাল ও নগদ ৪ লাখ ১৫ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে।

এছাড়া নওগাঁয় ১৩৫ মে. টন চাল, ২ লাখ আড়াই হাজার টাকা ও এক হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার; চাঁপাইনবাবগঞ্জে দুই মে. টন চাল, পাবনায় ৯৫ মে. টন চাল, সিরাজগঞ্জে ২৮৫ মে. টন চাল, ৩ লাখ ৮৯ হাজার টাকা, পর্যাপ্ত শুকনো খাবার, দুই লাখ টাকার গোখাদ্য ও দুই লাখ টাকার শিশুখাদ্য এবং বগুড়ায় ৬১০ মে. টন চাল, ১৩ লাখ টাকা, ছয় হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার, দুই লাখ টাকার গোখাদ্য এবং দুই লাখ টাকার শিশু খাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। দুর্গত এলাকায় সরকারি সহায়তা অব্যাহত রয়েছে।

Md.Sazirul Islam Lincoln.
Floating Correspondent.
D.A.B. Online Newspaper.
Rajshahi Mohanogor.

Leave a Reply