আক্তার হোসেন এর পক্ষ থেকে ৫০০ পিছ মাক্স অনির্বাণ কমিটির হাতে তুলে দেওয়া হয়।

0
2
আক্তার হোসেন এর পক্ষ থেকে ৫০০ পিছ মাক্স অনির্বাণ কমিটির হাতে তুলে দেওয়া হয়।

সাকিব হোসেন নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ
নওগাঁ জেলার পত্নীতলা উপজেলায় ছাত্রলীগের সকল কর্মকর্তারা সমাজ সেবায় একধাপ এগিয়ে। সমাজ সেবার জন্য তারা প্রতিষ্ঠা করে (অনির্বাণ) এর মূল উদ্দেশ্য হলো সর্বপ্রথম মানুষের সাহায্য করা, অসহায়ের পাশে থাকা, মাদক-বাল্যবিবাহ মুক্তকরন, সেচ্ছায় রক্ত দান সহ সকল সামাজিক কাজ করাই অনির্বাণ এর লক্ষ্য। এই সামাজ সেবক প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠাতা করা হয় ২০২০ সালের প্রথম দিকে মাত্র কয়েক মাসে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে অনির্বাণ।
অনির্বাণ কমিটির সভাপতিত্ব করেন কাজী তিতাস, প্রচার সম্পাদক মোঃ আসিক, আহ্বায়ক অনির্বাণ পত্নীতলা উপজেলা আবুসাঈদ স্বাধীন ও মোঃ মাহাবুব আলম অনির্বাণ কমিটির সদস্য সহ ছাত্রলীগের সেচ্ছাসেবীরা এইটি পরিচালনা করে।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপ তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক
আক্তার হোসেন এর পক্ষ থেকে ৫০০ পিছ মাক্স আজ অনির্বাণ পত্নীতলা উপজেলা শাখার আহ্বায়ক কমিটির হাতে তুলে দেয়। অনির্বাণ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি কাজী তিয়াস ও প্রচার সম্পাদক আশিক।
অনির্বাণ পত্নীতলা উপজেলা শাখার সকলের সার্বিক সহযোগিতার মাধ্যমে সুষ্ঠু ভাবে মাস্ক বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন করেছেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন নজিপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল আলম বেন্টু, পত্নীতলা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বদিউজ্জামান বিলাস, নজিপুর কলেজ ছাত্রলীগের নেতা আল-আমিন সবুজ,আহ্বায়ক অনির্বাণ পত্নীতলা উপজেলা আহ্বায়ক কমিটি আবুসাঈদ স্বাধীন ও অনির্বাণ কমিটির সদস্য মাহাবুব আলম সহ আরো অনেকে।

আক্তার হোসেন এর পক্ষ থেকে ৫০০ পিছ মাক্স অনির্বাণ কমিটির হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এসময়ে আহ্বায়ক, অনির্বাণ (পত্নীতলা উপজেলা আহ্বায়ক কমিটির) আবুসাঈদ স্বাধীন বলেন সকলকে অশেষ ধন্যবাদ এবং অতি আন্তরিকতার সাথে ধন্যবাদ জানাই আক্তার হোসেন ভাইকে।
এবং আমাদের অনির্বাণ-এর কার্যক্রম কে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য এগিয়ে আসা পত্নীতলা পৌর আওয়ামীলীগ,পত্নীতলা উপজেলা ছাত্রলীগ, নজিপুর কলেজ ছাত্রলীগ ও বাস স্ট্যান্ড বণিক সমিতির সভাপতি সহ সম্মানিত সকলকে জানাই অনেক অনেক ধন্যবাদ এবং ঈদ মোবারক।
(অনির্বাণ) পাশে আছি নির্ভয়ে

অনির্বাণ কমিটির সদস্য মোঃ মাহবুব আলম বলেন আক্তার ভাই কে সর্ব প্রথমে ধন্যবাদ জানাই,যার উপহারে আজকে সার্জিক্যাল মাক্স বিতরণ করা হচ্ছে, এবং উপজেলা বাসী সকলকে মাক্স পরে বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে সীমিত আকারে ঈদ উদযাপন করার জন্য আহ্বান জানায়ছি।

Leave a Reply