রাজশাহীতে দ্রুত মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন।

0
4
রাজশাহীতে দ্রুত মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন।

এম এস এইচ শাহাদত হোসেন,বাগমারা ,রাজশাহী

আজ ২৪/০৮/২০২০ ইং রাজশাহীতে রোজ সোমবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অতিদ্রুত মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় ফসলী জমি রক্ষার দাবি জানায় প্রগতিশীল নাগরিক সংহতির নামের সংগঠনটি।

প্রায় তিন শতাধিক নারী পুরুষ অংশগ্রহণে সোমবার (২৪ আগস্ট) দুপুরে মানবন্ধন ও সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয় ।উক্ত অনুষ্ঠানে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কলামিস্ট শাহ মো. জিয়াউদ্দিন সঞ্চালনা করেন।

সভায় বক্তব্য দেন, যুগ্ম সম্পাদক শিল্পী আজমল সাচ্চু, সমাজ কল্যান সম্পাদক কেএম ওবায়দুর রহমান, নাগরিক নেতা কামরান হাবিব, প্রগতিশীল নাগরিক সংহতির কার্যকরি সদস্য আশরাফ উদ্দিন, চায়না বেগম, শ্রীমতি অপর্ণা রানী, কেএম রেজাউল করিম খোকন, নাজমুল হক, শরীফ উদ্দিন প্রমুখ।

বক্তারা তাদের বক্তব্যে বলেন, রাজশাহীবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি এই নগরীতে একটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করার। বর্তমান সরকার প্রধান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজশাহীবাসীর এই দাবিটি পুরণ করেছেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বর্তমানে অস্থায়ী ক্যাম্পাসে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম চালানো হয়। ইতিমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো এবং বিশেষায়িত হাসপাতাল স্থাপনের জন্য নগরীর নওদাপাড়া বাসস্ট্যাণ্ড সংলগ্ন এলাকায় ভূমি নির্ধারণ করাসহ, উক্ত ভূমিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো নির্মাণ করার আনুসাঙ্গিক কিছু কাজও প্রাথমিকভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে।

একটি বিশেষ মহল মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য নির্ধারিত জমিতে বিশ্ববিদ্যালয়টি স্থাপন না করার পাঁয়তারা করছে, এই বিশেষ মহলটি টিকর ও সিলিন্দায় মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য জমি দেখছেন। টিকর এবং সিলিন্দায় যে জমি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য দেখা হচ্ছে তা হলো তিন ফসলী। তাছাড়া আমবাগানসহ নানা ফলের আবাদি বাগানও রয়েছে তাদের দেখা জমিতে। আর এই নতুন জমিতে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হলে কৃষকেরা ভূমি হারিয়ে বেকার হয়ে পড়বে। আর দীর্ঘ সুত্রিতার ফাঁদে আটকে পড়বে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন প্রক্রিয়া, তাই বক্তারা নির্ধারিত স্থানে ভূমি অধিগ্রহণসহ অবকাঠামো স্থাপনের দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন করতে দাবি জানায়। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের কাছে একটি স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।

Leave a Reply