পৌর মেয়র কর্তৃক লাঞ্ছিত হলেন পাবনা বেড়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা।

পৌর মেয়র কর্তৃক লাঞ্ছিত হলেন পাবনা বেড়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা।

মোঃ রেজাউল করিম বাবু, পাবনা জেলা প্রতিনিধিঃ-

পাবনার বেড়া উপজেলায় উন্নয়ন সমন্বয় সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ আনাম সিদ্দিকীকে লাঞ্চিত করেছেন পৌর মেয়র আব্দুল বাতেন।

আজ সোমবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে এই ঘটনাটি ঘটেছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেলা প্রশাসকসহ উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের নিকট লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ঘটনার বিস্তারিত উল্লেখ করে।

পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ জানান, পাবনার বেড়া উপজেলার বেড়া পৌরসভার পৌর মেয়র আব্দুল বাতেন উপজেলার কাজিরহাট ও নগরবাড়ি ঘাট ইজারা সংক্রান্ত একটি লিখিত রেজুলেশন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ আনাম সিদ্দিকীকে অনুমোদনের জন্যে চাপ প্রয়োগ করেন। বিষয়টি নীতিমালা বহির্রভূত হওয়ায় ইউএনও তা অনুমোদন দিতে অস্বীকৃতি জানালে মেয়র বাতেন তার সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেছেন বলে অভিযোগ পেয়েছি। ইতিমধ্যে আমি ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করে একাধিক জনপ্রতিনিধির নিকট থেকে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছি। আমরা এব্যাপারে সরকারের উর্দ্ধতন মহলে জানিয়েছি। জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহন করব।

এদিকে উন্নয়ন সমন্বয় সভায় উপস্থিত একাধিক জনপ্রতিনিধিরা জানান, উপজেলা প্রশাসনের নিয়ন্ত্রনে থাকা কাজিরহাট ও নগরবাড়ি ঘাট সম্পূর্ণ অনিয়মতান্ত্রিক ভাবে উপজেলা পরিষদের নিয়ন্ত্রনে দেওয়ার একটি লিখিত সিদ্ধান্তের রেজুলেশন অনুমোদন দিতে বেড়া পৌরসভার মেয়র আব্দুল বাতেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে চাপ প্রয়োগ করেন। বিষয়টি মেয়রের এখতিয়ার বহির্ভূত এবং বিধিসম্মত নয় বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তা অনুমোদন দেয়া সম্ভব নয় বলে জানান। এ সময় বেড়া পৌর মেয়র আব্দুল বাতেন চরম উত্তেজিত হয়ে অকথ্য ভাষায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে গালিগালাজ করেন এবং এক পর্যায়ে চেয়ার থেকে উঠে গিয়ে ধাক্কা দিয়ে তাকে মারতে উদ্যত হলে সভায় উপস্থিত অন্যান্যরা তাকে থামানোর চেষ্টা করেন। পরে সভাটি পন্ড হয়ে যায় এবং ওই সভায় উপস্থিত সবাই হতভম্ব হয়ে পরেন। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসন ও সকল কর্মকর্তাদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এব্যাপারে বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ আনাম সিদ্দিকী জানান, একটি অনাকাংখিত ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার বিস্তারিত আমার উর্দ্ধতন কতৃপক্ষকে অবহিত করেছি। এর চাইতে বেশী কিছু আর বলতে পারছি না বলেও তিনি জানান।

বিষয়টি জানার জন্য বেড়া পৌর মেয়র আব্দুল বাতেনের মুঠোফোনে (০১৭১৯৪৬০৬৯৭) একাধিক বার চেষ্টা করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

উন্নয়ন সমন্বয় সভায় উপস্থিত ছিলেন, বেড়া উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন, আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খাইরুল ইসলাম, বেড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কাশেম, জাতসাকিনী ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল হক বাবু, রুপপুর ইউপি চেয়ারম্যান উজ্জল হোসেন, পুরান ভারেঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল্লাহসহ উপজেলা সকল সরকারী দপ্তর প্রধান।

প্রসঙ্গত, বেড়া পৌর মেয়র আব্দুল বাতেনের বিরুদ্ধে দূর্নীতি অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি এক ইউপি চেয়ারম্যানের চাল চুরির ঘটনায় তার পক্ষে তদবির করায় দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে জেলা আওয়ামীলীগ তাকে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতিসহ সকল প্রকার পদ থেকে অব্যাহতি দেন।

Author: Md Arafat Hossain

Md Arafat Hossain is a publisher team chip and floating correspondent of D.A.B. News - দৈনিক আমার বাংলা।

Leave a Reply