ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩ এ প্রতিটি দলকেই উতরাতে হবে বাছাইপর্ব।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩
  • নিউজ ডেস্ক :-
  • প্রকাশ:- ২৯.০৭.২০২০, সময়:- ০৮.২০ Am

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩ খেলতে হলে বাছাইপর্ব উতরাতে হবে বাংলাদেশকে। চমকে উঠবেন না। কারণ স্বাগতিক ভারত বাদে বাকি ৯টি দেশকেই জটিল এক বাছাইপর্বের পরীক্ষা পাস করে তবেই যেতে হবে মূল টুর্নামেন্টে।

তা সেটি কেমন? জটিল বাছাইপর্ব একটু সহজ করে বোঝানোর চেষ্টা করি। করোনাভাইরাসের কারণে এলোমেলো হয়ে যাওয়া ক্রিকেটসূচীতে কিছু পরিবর্তন আসবে অবধারিতভাবে। আইসিসি এখানো তা জানায়নি। তবে ৩০ জুলাই ইংল্যান্ড-আয়ারল্যান্ড সিরিজের মাধ্যমে শুরু হচ্ছে এই বাছাইপর্ব। যার আনুষ্ঠানিক নাম ‘আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগ’।

১৩টি দল নিয়ে এই প্রতিযোগিতা। টেস্ট খেলুড়ে ১২ দেশের সঙ্গে ‘আইসিস ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট সুপারলিগ ২০১৫-১৭’ চ্যাম্পিয়ন নেদারল্যান্ডস। ১৩ দলের প্রত্যেকে এ বাছাইপর্বে খেলবে ৮টি সিরিজ। ৪টি নিজেদের মাঠে, ৪টি প্রতিপক্ষের মাঠে। প্রতি সিরিজেই হবে তিনটি করে ওয়ানডে।

করোনাভাইরাসের কারণে নতুন সূচী কেমন হবে, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে আইসিসি বোর্ড সভায়। তবে আগের আইসিসি ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রাম অনুযায়ী বাংলাদেশের চারটি হোম সিরিজ এ বছরের ডিসেম্বরে শ্রীলঙ্কা, ২০২১ সালের জানুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অক্টোবরে ইংল্যান্ড ও ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। আর অ্যাওয়ে সিরিজের মধ্যে মে মাসে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ তো স্থগিত হয়ে গেছে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে। এছাড়া ২০২১ সালে ফেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড, জুনে জিম্বাবুয়ে ও ২০২২ সালের মার্চে দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে খেলার কথা।

আগেই বলেছি, প্রতিটি সিরিজে হবে তিনটি করে ম্যাচ। অর্থাৎ, ৮ সিরিজে প্রতিটি দল ম্যাচ খেলবে মোট ২৪টি। এখানে প্রতি ম্যাচ জয়ের জন্য ১০ পয়েন্ট, টাই-নো রেজাল্ট-পরিত্যক্ত হলে ৫ পয়েন্ট। আর হারের জন্য অবশ্যই কোনো পয়েন্ট নেই। সব দলের সব পয়েন্ট মিলিয়ে হবে এই সুপার লিগের পয়েন্ট টেবিল। ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩ এর  স্বাগতিক দেশ হিসেবে ভারত মূল টুর্নামেন্টে খেলবেই; সেটি সুপার লিগের পয়েন্ট তালিকায় যদি ১৩ দলের মধ্যে ১৩ নম্বরেও থাকে। সুপার লিগের পয়েন্ট তালিকায় ভারত বাদে শীর্ষ সাতটি দল টিকেট পাবে ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩ খেলার। মানে, ভারত যদি টেবিলের প্রথম সাত দলের মধ্যে থাকে, তাহলে ৮ নম্বর দলটিও বিশ্বকাপ খেলবে সরাসরি।

টেবিলের তলানির বাকি যে ৫ দল, তাদেরও ২০২৩ বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ একেবারে শেষ হয়ে যাবে না। তারা অংশ নেবে আরেকটি বাছাইপর্বে। সেখানে এই ৫ দলের সঙ্গে আইসিসি সহযোগী আরো ৫টি দেশ থাকবে। ১০ দলের মধ্যে শীর্ষ ২টি দল খেলবে বিশ্বকাপ। সঙ্গে সুপার লিগের ৮ দল তো থাকছেই। সব মিলিয়ে এ ১০ দল নিয়ে ২০২৩ সালের অক্টোবর-নভেম্বরে হবে পরবর্তী ওয়ানডে বিশ্বকাপ।

বাংলাদেশ ক্রিকেটের সামনে তাই প্রথম চ্যালেঞ্জ, এই সুপার লিগের শীর্ষ ৭/৮ দলের মধ্যে থেকে ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩ ওয়ানডে খেলা নিশ্চিত করা। দ্বিতীয় বাছাইপর্বটির কথা না হয় পরে ভাবা যাবে!

খেলাধুলার আরো খবর পড়তে ক্লিক করুন

আমাদের আগের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে ক্লিক করুন

Author: admin

Leave a Reply