উলিপুর পৌরবাসীর ন্যায্য অধিকার আদায়ে মাঠে নেমেছেন সাবেক ছাত্রনেতা, আলহাজ্ব মামুন সরকার মিঠু”।

“উলিপুর পৌরবাসীর ন্যায্য অধিকার আদায়ে মাঠে নেমেছেন সাবেক ছাত্রনেতা, আলহাজ্ব মামুন সরকার মিঠু”।

উলিপুর প্রতিনিধি
মোঃ ফখরুল ইসলাম সুমন

আলহাজ্ব মামুন সরকার মিঠু ২৬/১২/১৯৮১ সালে একটি সাধারন পরিবারে জন্মগ্রহন করেন।ছাত্রজীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ভালবেসে জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি আস্থা রেখে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন।মিঠুর বড়বোন মোছাঃলাভলি বেগম ও ছাত্রজীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন।পরবর্তী জীবনে তিনি কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরি উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দ্বায়িত্ব পালন করেন।বর্তমানে তিনি কুড়িগ্রাম জেলাপরিষদের নির্বাচীত সদস্য ও নাগেশ্বরি উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতির দ্বায়িত্ব পালন করছেন।

একজন আদর্শবান,নিতীবান পরোপকারি দ্বায়িত্বশীল এ তরুন নেতার সাথে একান্ত আলাপকালে তিনি জানান, দলের জন্য ত্যাগী নির্যাতিত খাঁটি মুজিব আদর্শের সৈনিকদের অবশ্যই মুল্যয়ন করবেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।
১৯৯৫ সালের ২৩ জুলাই বিএনপি সরকারের বৈষম্যমুলক শিক্ষানীতির বিরুদ্ধে রাজপথে আন্দোলন করতে গিয়ে উলিপুর বিএনপি ও তার অঙ্গসংগঠন উপজেলা শ্রমিকদলের হামলায় নির্মমভাবে গুরতর আহত হয়ে রংপুর মেডিকেল হাসপাতালে দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসাধীন ছিলেন।উক্ত ঘৃণ্য হামলার প্রতিবাদে উলিপুরের সর্বস্তরের জনগন তিব্র আন্দোলন গড়ে তোলে যার ফলস্রুতিতে মাসব্যাপি চিলমারি উলিপুর কুড়িগ্রামের সকল গন পরিবহনের চলাচল বন্ধ থাকে।

২০০০ সাল থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ উলিপুর উপজেলা শাখার সফল যুগ্ন আহবায়কের দ্বায়িত্ব পালন করেন।২০০৩ সালে উলিপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদকের দ্বায়িত্বভার গ্রহন করেন।২০০৮ এ বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ উলিপুর পৌর শাখার সদস্য ও বর্তমানে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ উলিপুর পৌর শাখার সদস্য পদ লাভ করেন।তার আপন চাচা মরহুম আঃমালেক সরকার একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।
আলহাজ্ব মামুন সরকার মিঠু কর্মজীবনে একজন প্রতিষ্টিত ব্যাবসায়ী। ২০১৬ সালে পবিত্র হজ্ব পালন করেন। কর্মজীবনে সফলতা পরবর্তী দীর্ঘদিন থেকে উলিপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মসজিদ,মন্দির মাদ্রাসা, এতিমখানা, কবরস্থানের সংস্কারকাজে আর্থিক সহযোগিতা করে চলেছেন।
অত্যান্ত পরিশ্রমী এ সাবেক ছাত্রনেতা দিন রাত পৌরসভার নয়টি এলাকায় ব্যাপক জনসংযোগ করে চলছেন। দলীয় মনোনায়নের ব্যাপারে তিনি আশাবাদী।তিনি আরও জানান, নির্বাচিত হলে, বর্তমান ভঙ্গুর পৌরসভার রাস্তাঘাটের বেহাল দশা থেকে পৌরবাসীকে মুক্তি দেবেন।

পৌরবাসীর জন্য জানযট মুক্ত শহর ও পাবলিক টয়লেট বিনির্মানে কাজ করবেন। বিশেষ করে উলিপুর পৌরসভার অন্যতম সমস্যা জলাবদ্ধতা নিরসনে পরিকল্পিত দীর্ঘমেয়াদি ড্রেনেজ ব্যাবস্থা গ্রহন করবেন।বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ ও মাদক মুক্ত পৌরসভা মোট কথা পৌরবাসীর প্রকৃত সকল সেবা দেয়া এবং একটি কার্যকর ডিজিটাল পৌরসভা গড়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যাক্ত করেছেন।

পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ড ঘুরে ভোটারদের সাথে কথা বলে জানাযায় যে তরুন নেতৃত্ব হিসেবে মামুন সরকার মিঠু অল্প সময়ে ভোটারদের মনে জায়গা করে নিয়েছেন।

Author: Md Arafat Hossain

Md Arafat Hossain is a publisher team chip and floating correspondent of D.A.B. News - দৈনিক আমার বাংলা।

Leave a Reply