চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে রবি আজিয়াটা লিমিটেডের চুক্তি স্বাক্ষর।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে রবি আজিয়াটা লিমিটেডের চুক্তি স্বাক্ষর।
মোঃ সিরাজুল মনির,ব্যুরো প্রধান, চট্টগ্রাম বিভাগ:-

বাংলাদেশসহ বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করায় সরকারি নির্দেশনায় দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের একাডেমিক কার্যক্রম পুষিয়ে নিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ইতোমধ্যে অনলাইন ভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রম চালু করেছে এবং এ কার্যক্রম নিয়মিত অব্যাহত আছে।

উক্ত অনলাইন কার্যক্রমে সকল শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে চবি প্রশাসন প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে প্রতি মাসে সাশ্রয়ী মূল্যে ১৫ জিবি ডাটাপ্যাক প্রদান করবে। এরই আলোকে চবি প্রশাসনকে সাশ্রয়ী রেটে ডাটাপ্যাক সরবরাহ করার লক্ষ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) বেলা ১১টায় চবি’র চারুকলা ইন্সটিটিউটে মোবাইল অপারেটর ‘রবি আজিয়াটা লিমিটেড’-এর সাথে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে চবি সিনেট ও সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ, ডিনবৃন্দ, চবি শিক্ষক সমিতির প্রতিনিধিবৃন্দ, কলেজ পরিদর্শক, প্রভোস্টবৃন্দ, বিভাগের সভাপতিবৃন্দ, ইন্সটিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালকবৃন্দ, গঠিত কমিটির সদস্যবৃন্দ আইসিটি সেলের পরিচালক এবং সহকারী পরিচালকবৃন্দ, প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টরবৃন্দ, ছাত্র-ছাত্রী নির্দেশনা ও পরামর্শ কেন্দ্রের পরিচালক, অফিস প্রধানবৃন্দ, রবি আজিয়াটা লিমিটেডের জিএম (টেকনিক্যাল) অনুপম কুমার দে, ম্যানেজার (কর্পোরেট) কায়সার হামিদ ফরহাদ, আবদুল্লাহ আল মামুন, মোস্তফা আল মামুন, তৌহিদ কামাল চৌধুরী ও ওমর হায়াত চৌধুরী এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সমঝোতা চুক্তিতে চবি’র পক্ষে চবি রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর এস এম মনিরুল হাসান এবং রবি আজিয়াটা লিমিটেডের পক্ষে সিইবিও মো. আদিল হোসেন (নোবেল) স্বাক্ষর করেন।

চবি উপাচার্য বলেন, “দেশে করোনা পরিস্থিতির কারণে সরকারের নির্দেশনার আলোকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষার্থীদের একাডেমিক ক্ষতি পুষিয়ে নিতে গত ৬ সেপ্টেম্বর অনলাইন ভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রম চালু করেছে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সবসময় শিক্ষার্থীবান্ধব কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর।” এ কার্যক্রমে সকল শিক্ষার্থীকে শতভাগ ক্লাশমুখী করতে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে প্রতি মাসে সাশ্রয়ী মূল্যে ১৫ জিবি ডাটাপ্যাক প্রদান করার লক্ষ্যে চবি প্রশাসন মোবাইল অপারেটর কোম্পানি ‘রবি আজিয়াটা লিমিটেড’-এর সাথে এক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করেছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের আহ্বানে সাড়া দিয়ে এবং সামাজিক দায়বদ্ধতার নিরিখে রবি আজিয়াটা লিমিটেড শিক্ষার্থীদের বৃহত্তর কল্যাণে সাশ্রয়ী রেটে ডাটা প্যাক প্রদানে এগিয়ে আসায় উক্ত প্রতিষ্ঠানের সর্বোচ্চ কর্তাব্যক্তি এবং সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তাবৃন্দকে উপাচার্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।
দেশের ভবিষ্যৎ মানবসম্পদ আমাদের প্রাণপ্রিয় শিক্ষার্থীদের প্রতি উক্ত প্রতিষ্ঠানের এ সহযোগিতা দেশ-জাতির কল্যাণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন উপাচার্য।

একইসাথে উপাচার্য শিক্ষার্থীদেরকে ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রদত্ত এ সুবর্ণ সুযোগ গ্রহণ করে তাদের শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রেখে পঠন-পাঠনে অধিকতর মনোযোগী হয়ে তাদের অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জনে ব্রতী হবার আহ্বান জানান।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চবি সিনেট সদস্য প্রফেসর ড. সুলতান আহমেদ, সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নাসিম হাসান, এফসি সদস্য প্রফেসর ড. মো. সেলিম উদ্দিন, সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মুস্তাফিজুর রহমান ছিদ্দিকী, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর এস এম মনিরুল হাসান, সোহরাওয়ার্দী হলের প্রভোস্ট প্রফেসর মাইনুল হাসান চৌধুরী, বাংলাদেশ স্টাডিজ বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী এবং রবি আজিয়াটা লিমিটেডের সিইবিও আদিল হোসেন নোবেল ও জিএম আরিফ আহমেদ চৌধুরী।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন চবি প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া।
উল্লেখ্য, বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগ/ইন্সটিটিউটের আগ্রহী শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের তালিকা চবি আইসিটি সেলের মাধ্যমে সংগ্রহ, স্ব স্ব বিভাগ/ইন্সটিটিউটে সভাপতি/পরিচালকের মাধ্যমে যাচাই-বাছাই ও বাছাইকৃত তালিকা চবি আইসিটি সেলের মাধ্যমে রবি আজিয়াটা লিমিটেডকে প্রদানের কার্যক্রম চলমান আছে।

এরই আলোকে সংশ্লিষ্ট শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ তাদের নির্ধারিত রবি মোবাইল নম্বরে প্রাথমিকভাবে এক মাসের জন্য ১৫ জিবি করে ডাটা প্যাক পাবেন।

Author: admin

Leave a Reply