ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের উপ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের নৌকা পেতে চান অনেকেই।

0
51

ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের উপ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের নৌকা পেতে চান অনেকেই।

 

ঈশ্বরদী প্রতিনিধিঃ আগামী ১০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের উপ নির্বাচন।
উপনির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামী লীগের ১৪ জন প্রার্থী দলীয় মনোনয়নপত্র উত্তোলন ও জমাদান কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে প্রচার ও প্রচারনা।

কেন্দ্রে লবিং এবং স্থানীয়ভাবে গ্রুপিং-এ ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন প্রার্থীরা।
ইতোমধ্যে নির্বাচন কমিশন তফশিল ঘোষণা করেছে। গত ২৬ সেপ্টেম্বরের জাতীয় সংসদের পাবনা-৪ আসনের উপনির্বাচনে বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাস নৌকা প্রতিকের প্রার্থী হওয়ায় চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করলে ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদটি শুন্য হয়। পাবনা -৪ সংসদ উপ নির্বাচনে নুরুজ্জামান বিশ্বাস এম পি নির্বাচিত হয়েছেন। পদত্যাগের পর পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম খান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
চেয়ারম্যানের পদটি শুন্য হওয়ার পর হতেই আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগের নেতারা উপনির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়ে স্থানীয় পত্র-পত্রিকায় ও এলাকার নেতা-কর্মীদর সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছেন।

আগামী ১৫ নভেম্বরের মধ্যে কমিশনের মনোনয়নপত্র উত্তোলন ও জমা দেওয়ার ঘোষণার সাথে সাথে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম উত্তোলন ও জমা দেওয়ায় ব্যস্ত প্রার্থীরা।

ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নায়েব আলী বিশ্বাস, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা চান্না মন্ডল, আরেক সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ রশীদুল্লাহ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান মিন্টু, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম খান, উপজেলা পরিষদের সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মাহজেবিন শিরিন পিয়া, পাবনা জেলা কৃষক লীগের নেতা ও সাবেক ভিপি মুরাদ আলী মালিথা, পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পাবনা জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য সাইফুল ইসলাম বাবু মন্ডল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফরিদুল আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর জহুরুল হক পুনো, সাংগাঠনিক সম্পাদক ও সাহাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মতলেবুর রহমান মিনহাজ, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুজ্জামান রিপন, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আতিয়া ফেরদৌস কাকলি এবং আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ঈশ্বরদী সংগঠনের সভাপতি আব্দুর রহমান মিলন।

ইতিমধ্যে কয়েকজন নৌকার মাঝি হওয়ার জন্য দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। অন্যরাও মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের জন্য ঢাকামূখি হয়েছেন বলে জানা গেছে।

Leave a Reply