২৮ বছর পর আজান ধ্বনিত হলো নাগোর্নো-কারাবাখের শুশা শহরে

0
20

২৮ বছর পর নাগোরনো-কারাবাখের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর শুশা দখলমুক্ত করেছে আজারবাইজান। বুধবার ওই শহরটিতে প্রথমবারের মতো আজান দেয় আজারবাইজান। খবর ইয়েনি শাফাকের।

সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, শুশা শহরের ঐতিহাসিক ইউখারি গভহার আগা মসজিদে আজারবাইজানের এক সেনাসদস্য আজান দিচ্ছেন। এরপর মসজিদ থেকে শহরের বেশ কিছু অঞ্চল দেখানো হয়।

কারাবাখের রাজধানী স্টেপনোকার্টের পর শুশা সেখানকার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। ১৯৯২ সালের ৮ মে শুশা দখল করে আর্মেনিয়ার বাহিনী। এই অঞ্চলটি কারাবাখের কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ শহর।

গত ৮ নভেম্বর আর্মেনিয়ার হাত থেকে শুশা শহর দখল মুক্ত করার ঘোষণা দেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভে।

তখন সামরিক পোষাক পরে জাতির উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে প্রেসিডেন্ট ইলহাম বলেন, ২৮ বছর পরে শুশায় আযান শোনা যাবে।

নাগোর্নো-কারাবাখ নিয়ে ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে ব্যাপক সংঘর্ষে জড়ায় আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান। রুশ ও মার্কিন মধ্যস্থতায় দুই দেশ যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হলেও তা কয়েকবার ভেস্তে যায়। দুই পক্ষের রক্তক্ষয়ী এ লড়াইয়ে বেসামরিক নাগরিকসহ কয়েক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

তবে মঙ্গলবার রাশিয়ার মধ্যস্থতায় ফের যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয় আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান। এরই অংশ হিসেবে নাগোর্নো-কারাবাখে রাশিয়ার শান্তিরক্ষীবাহিনী মোতায়েন করা রয়েছে।

Leave a Reply