আওয়ামীলীগের দু গ্রুপে সংঘর্ষ আহত ৭ আটক ৪।

0
7
  • পিন্টু স্যার, নাটোর প্রতিনিধি:-
  • প্রকাশ ১৪/০৯/২০২০, সময় ১১.৩৭ am

নাটোরের তেবাড়িয়া হাটে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্র“পের সংঘর্ষে অন্তত ছয় জন আহত হয়েছেন। সংঘর্ষের সময় সাবেক ইউপি সদস্য আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল মেম্বারের ২টি বাড়ি হামলা ও দুইটি মটর সাইকেল ভাঙচুর এবং লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রবিবার বিকেলে শহরতলীর তেবাড়িয়া হাটে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে ‎।ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নাটোর সদর থানারর ওসি জাঙ্গাঙ্গীর আলম জানান, দুই পক্ষের সংঘর্ষ ঠেকাতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে ।

তিনি বলেন, সংঘর্ষের সময় কিছু বাড়ি ঘর ও মোটর সাইকেল ভাঙচুর করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আলীগ নেতা নাজমুলের অনুসারী বলে পরিচিত তেবাড়িয়া এলাকার বাচ্চু মিয়ার ছেলে সোহেল ,মিজানুর রহমানের ছেলে নোহান,মৃত নাজমুল সরকারের পুত্র নয়ন ও হুগোলবাড়িয়া এলাকার বাবুল প্রামালিকের ছেলে রতনকে আটক করেছে পুলিশ । এলাকায় পুলিশ মোতায়েন আছে এবং বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে নাটোর পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হোসেনের সাথে সাবেক ইউপি সদস্য প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল মেম্বারের ছেলেদের সাথে বিরোধ চলে আসছিল। রোববার তেবাড়িয়া হাটের ছাগল হাটায় বাবুল মেম্বারের ছেলে সুজন খাজনা আদায়কালে আওয়ামী লীগ নেতা নাজমুল তাকে মারপিট করে । পরে নাজমুল সমর্থকদের সঙ্গে বিতন্ডায় জড়ান সুজন ।

এ ঘটনায় নাজমুল হোসেনের সমর্থকরা বাবুল মেম্বারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এ ঘটনায় আহত হোন আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল প্রামাণিক (৬৫), তাঁর স্ত্রী সফুরা বেগম (৫০) , পুত্রবধু পুরনি বেগম (২২) , কেয়া বেগম (২১) , ছেলে সুজন প্রামাণিক (২৮) ও বাসার কেয়ারটেকার আনোয়ার (৫০) । আহতদের চিকিৎসার জন্য নাটোর আধুনিক হাসপাতালে নেয়া হয় । পরে নাটোর থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

Leave a Reply