চট্টগ্রামে পেঁয়াজ পঁচে যাচ্ছে, দাম কমার লক্ষন নেই।

চট্টগ্রামে পেঁয়াজ পঁচে যাচ্ছে, দাম কমার লক্ষন নেই।

চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ প্রাইকারি বাজারে বস্তায় বস্তায় পেঁয়াজ পচন ধরলেও ধাম কমাচ্ছেনা ব‍্যবসায়ীরা। বরং পঁচা পেঁয়াজ ও চড়া দামে বিক্রি করছে।
সরেজমিনে পরিদর্শন করে দেখা যায় পঁচে যাওয়া পেঁয়াজ রোধে শুকিয়ে একটু শক্ত করে পূনরায় বিক্রির জন্য বস্তাবন্দি করতেছে। বাজারে একটু ভালো মানের পেঁয়াজ ৭০/৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পাশাপাশি পঁচে যাওয়া পেঁয়াজ ৫০/৬০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। পঁচে যাওয়া এসব পেঁয়াজ খেয়ে নানা রকম রোগের সৃষ্টি হতে পারে বলে জানান চমেক হাসপাতালের হ্নদরোগ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডাঃ প্রদীপ কুমার দাশ। তিনি বলেন অসাধু ব‍্যবসায়ীদের কারণে পঁচে যাওয়া পেঁয়াজ খেয়ে সাধারণ পেটের পীড়া দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি।
খাতুনগঞ্জ পেঁয়াজের আড়তদার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন জানান, করোনাকালীন ক্ষতি পুশিয়ে নিতে কিছু নরম পেঁয়াজ তারা বাজারে ছাড়তে বাধ্য হচ্ছে। দাম এর বিষয়ে তিনি বলেন এর চাইতে কম দামে বিক্রি করলে তাদের ক্ষতি হয়ে যাবে।
ব‍্যাংকার নুরুল ইসলাম বলেন, জেলা প্রশাসনের সমন্বিত টিম মাঝে মাঝে পেয়াজের আড়তে জরিমানা করার পর এখানকার আড়তদাররা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে। অভিযান এবং জরিমানা প্রতিনিয়ত হলে এর সুফল আসতে পারে বলেও তিনি মনে করেন।
ক‍্যাব এর চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি এস এম নাজের হোসাইন বলেন, পঁচে যাওয়া বাজারে বিক্রি করা অত্যন্ত অমানবিক এবং অনৈতিক একটি বিষয়। এসব পেঁয়াজ খেলে মানুষের রোগব‍্যাধী বাড়তে পারে। তিনি বলেন ক‍্যাব বিভিন্ন সময় জেলা প্রশাসনের সহায়তায় বিভিন্ন অভিযান পরিচালনা করে আসছে।

Author: Md Arafat Hossain

Md Arafat Hossain is a publisher team chip and floating correspondent of D.A.B. News - দৈনিক আমার বাংলা।

Leave a Reply