দ্বিতীয় স্ত্রী তানজিনা বেগমকে(৩৫) শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও বড় সতীনকে গ্রেফতার হয়েছে নীলফামারী জেলার ডিমলা থানা পুলিশ।

0
31

দ্বিতীয় স্ত্রী তানজিনা বেগমকে(৩৫) শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও বড় সতীনকে গ্রেফতার হয়েছে নীলফামারী জেলার ডিমলা থানা পুলিশ।

Asad Ukil, Dimla Correspondent, Nilphamari দ্বিতীয় স্ত্রী তানজিনা বেগমকে(৩৫) শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও বড় সতীনকে গ্রেফতার হয়েছে নীলফামারী জেলার ডিমলা থানা পুলিশ। গতকাল বুধবার(১৮ নভেম্বর/২০২০) ভোরে ডিমলা উপজেলার ০২ নং বালাপাড়া ইউনিয়নের ০৪ নং ওয়ার্ড দক্ষিণ বালাপাড়া গ্রামের কাল্টু মামুদের ছেলে জিয়াউর রহমান (ছন্দনাম জিয়া) (৪৫) ও তার প্রথম স্ত্রী মিনা বেগমকে (৩৮) গ্রেফতার করে।
এ ঘটনায় হত্যার শিকার তানজিনা বেগমের বাবা উপজেলা ০১ নং পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নের কালীগঞ্জ গ্রামের নছির উদ্দিন বাদী হয়ে ডিমলা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন বলে পুলিশ জানায়।
ডিমলা থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, হত্যা মামলা দায়ের পর আসামীদের গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে মাধ্যমে বুধবার বিকালে তিন দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি নিহত তানজিনার লাশ দুপুরে জেলার মর্গে ময়না তদন্ত সম্পন্ন করা হয়।
মামলার অভিযোগে জানা যায়, প্রথম স্ত্রী মিনা বেগম থাকা অবস্থায় ছয় মাস আগে জিয়াউর রহমান জিয়া স্বামী পরিত্যাক্ত তানজিনা বেগমকে বিয়ে করে। বিয়ের পর সু-কৌশলে জিয়াউর রহমান দ্বিতীয় স্ত্রী তানজিনার পোষ্ট অফিসে রক্ষিত তিন লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। গতকাল মঙ্গলবার(১৮ নভেম্বর/২০২০) সন্ধ্যায় নিজবাড়িতে দ্বিতীয় স্ত্রী তানজিনাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহে জিয়াউর রহমান ও তার প্রথম স্ত্রী মিনা বেগম গ্রামে প্রচার করে তানজিনা বেগম হার্ট স্টক করছে ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে।

নছির উদ্দিন কান্না বিজরিত কন্ঠে বলেন, আমার মেয়ের পোষ্ট অফিসের থাকা তিন লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার পরই এই হত্যা কান্ড ঘটনালো জিয়াউর রহমান ও তার প্রথম স্ত্রী মিনা বেগম। আমি তাদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি ও বিচার চাই।

Leave a Reply